ভোগান্তিতে এলাকাবাসি কুয়াকাটায় বসত বাড়ি ঘিরে শুটকি পল্লী

3

 

মনিরুল ইসলাম,মহিপুর প্রতিনিধি ঃ মহিপুরের আলীপুর বসত বাড়ি এলাকা ঘিরে শুটকি পল্লী করায় দুর্গন্ধের ফলে শত শত পরিবার ভোগান্তিতে রয়েছে। জন বসতি এলাকায় এসব শুটকি পল্লী গড়ে ওঠায় পরিবেশ দূষণে বসবাস অনুপযোগি হয়ে পড়েছে। মাছের দুর্গন্ধে পরিবেশ দূষণের ফলে এলাকার অনেকেই স্বাস্থ্যব্যধিতে আক্রান্ত হচ্ছে প্রতিনিয়ত। ওই এলাকার অনেক শিশু-কিশোর ডায়রিয়া, কলেরা, আমাশ্বয়সহ বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হয়ে পড়েছে। এমনকি জেএসসি/পিএসসি পরীক্ষার্থীরা বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হয়ে পড়ায় সঠিকভাবে পরীক্ষা দিতে পারেনি এমন এন্তার অভিযোগ রয়েছে। লোকালয় তথা জন বসতি এলাকায় মাচন তৈরি করে মাছ শুটকিজাত করণ পরিবেশগতভাবে নিষেধাজ্ঞা থাকলেও এখানকার ব্যবসায়ী শাহজাহান ও শাহাদাত এর কোন তোয়াক্কা না করে শুটকিজাত প্রক্রিয়া চালাচ্ছে বীর দাপটে।

ওই এলাকার বাসিন্দা আইউব আলী, আঃ হক, মোশারেফ মোল্লা, লাল মিয়া, মনিরসহ একাধিক লোক জানান, তাদের বাড়ির পিছনে মাছ শুটকি করায় দুর্গন্ধের জন্য তাদের বসবাস এখন অসম্ভব হয়ে পড়েছে। তাদের মধ্যে অনেকে আরও বলেন, আমাদের এ ছাড়া অন্য কোথায় কোন জায়গা জমি নেই যে, সেখানে গিয়ে বসবাস করব। এব্যাপারে এলাকার গণ্যমান্য অনেকের কাছে গেলেও কোন প্রতিকার মিলেনী।

এব্যাপারে শুটকি ব্যবসায়ী শাহজাহান বলেন, আমরাওতো ব্যবসা করে চলি, আমরাওবা যাব কোথায় ? তবে অল্পদিনের মধ্যেই স্থান পরিবর্তন করতেছি।

এ বিষয় লতাচাপলী ইউনিয়ন চেয়ারম্যান (ভারপ্রাপ্ত) আবু সাইদ ফকির বলেন, জনসাধারণের বসবাস করা এলাকায় শুটকিজাতকরণ প্রক্রিয়া করা যাবেনা, আমি ব্যবসায়ীদের নিয়ে বসে এর একটা ব্যবস্থা করতেছি।

এলাকাবাসীর প্রাণের দাবী শুটকি পল্লী অন্যত্র অপসারন করে পরিবেশ দূষণ থেকে মুক্ত হতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করছে।