মা-মেয়ে গণধর্ষনের প্রতিবাদে মানব বন্ধন

0

স্টাফ রিপোর্টারঃ পটুয়াখালীর বাউফলের সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের মা ও মেয়েকে ধর্ষনের প্রতিবাদে বিক্ষেভ ও মানব বন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার বেলা ১১ টায় পটুয়াখালী প্রেসক্লাব চত্তরে এ মানব বন্ধন কর্মসূচীর আয়োজন করে ছাত্র-যুব ঐক্য পরিষদ পটুয়াখালী জেলা শাখা। ঘন্টাব্যাপী এ মানব বন্ধনে পটুয়াখালীর বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ অংশগ্রহন করেন। মানব বন্ধন চলাকালীর সময় একাত্বতা জানিয়ে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ হিন্দু, বৌদ্ধ,খ্রীষ্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি মন্ডলীর সভাপতি সাবেক প্রেসক্লাবের সভাপতি স্বপন ব্যার্নাজী, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব নির্মল কুমার দাশ গুপ্ত, ছাত্র-যুব ঐক্য পরিষদ পটুয়াখালী জেলা শাখার সভাপতি এ্যাড. সঞ্জয় কুমার খাসকেল, সাধারণ সম্পাদক অশোক রায়, বাংলাদেশ হিন্দু, বৌদ্ধ,খ্রীষ্টান ঐক্য পরিষদের সাংগঠনিক সম্পাদক বাদল হালদার,প্রচার সম্পাদক এ্যাড.সুব্রত শীল সুভ্র প্রমুখ। বক্তরা এ গণ ধর্ষন ও দেশে চলমান হত্যার তীব্র নিন্দা ও এসব অনৈতিকতার সাথে যুক্তদের দ্রুত গ্রেফতার করে আইনের আওতায় নিয়ে আসার দাবী জানান।

উল্লেখ্য, বাউফলের তেঁতুলিয়া নদীতে গত ১১জুন শনিবার গভীর রাতে সংখ্যালঘু পরিবারের মা-মেয়েকে গনধর্ষন করেছে ৬ ধর্ষক। এ ঘটনা স্বেচ্ছা সেবক লীগের নেতা নুরে আলম নামের এক ধর্ষককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

এ ব্যাপারে সখ্যালঘু পরিরারটি বাউফল থানায় একটি ধর্ষন মামলা দায়ের করেছে। এ ছাড়াও গত ১২জুন রবিবার পটুয়াখালী জেষ্ঠ্য বিচারিক হাকিম আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছেন মা- মেয়ে ও নুর আলম ।

এ দিকে ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে নাজিরপুর ইউনিয়নের ১ নং ওয়ার্ডের স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহ-সভাপতি নূর আলম মল্লিক (৩৫) ও সাংগঠনিক সম্পাদক মো.রহিম মীর (৩৪) কে দল থেকে গত ১৩ জুন সোমবার সাময়িকভাবে বহিস্কার করা হয়। একই কারনে একই দিন ১ নম্বর ওয়ার্ডের যুবলীগের সহ-সভাপতি  মো. সোহেল মৃধাকেও বহিস্কার করা হয়।