মির্জাগঞ্জে অগ্রনী ব্যাংকে রিকবারির নামে চলছে হরিলুট

0

মির্জাগঞ্জ প্রতিনিধিঃ পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জ উপজেলা সুবিদখালী অগ্রনী ব্যাংকে ঋন রিকবারির নামে চলছে হরিলুটের অভিযোগ।

অভিযোগের জানা যায়, অগ্রনী ব্যাংক সুবিদখালী শাখায় ২০০৪ সাল থেকে ব্যাপক অনিয়মের মাধ্যমে বেনামে ঋন বিতরন করে তৎকালীন ব্যাংক কর্মকর্তা মোঃ সোবাহান, মৃত- মোঃ আনছার আলী এরা ভূয়া নাম ঠিকানা বিহীন লক্ষ লক্ষ টাকা ঋন বিতরন দেখায়। কিন্তু ঋন গ্রহীতাদের যে ঠিকানা দেওয়া আছে ঐসব ঠিকানার অনেককেই  খোজ করে পাওয়া যাচ্ছে না। আবার যাদেরকে পাওয়া যাচ্ছে তাদের খেলাপী ঋন আদায় না করে দূর্নীতিবাজ কর্মকর্তা আদায়কারী সিনিয়র অফিসার মোঃ ফারুক হোসেন ঋন গ্রহীতার টাকা আদায় না করে রিকবারির জন্য স্বাক্ষর নিয়ে আসে। তাতে গ্রহীতা জানেনা তার নামে কত টাকা আবার পুনরায় দেওয়া হয়েছে। এভাবে ফারুক হোসেন রিকবারির নামে হাতিয়ে নিচ্ছে লক্ষ লক্ষ টাকা। ঋন গ্রহীতা মোঃ রশিদ জোমাদ্দার জানান যে, আমি ৫,০০০/- টাকা লোন নিয়েছিলাম, একদিন ফারুক হোসেন এসে বলে আপনি এখানে স্বাক্ষর দিন। আপনাকে পুনরায় ঋন দেওয়া হবে। কিন্তু কত টাকা আমার নামে পুনরায় দেওয়া হচ্ছে তা আমি জানিনা। এভাবে সব গৃহীতার লোন টাকা আদায় না করে রিকবারির নামে হাতিয়ে নিচ্ছে লক্ষ লক্ষ টাকা। তার সহযোগী হিসেবে আছে দুলু নামে একজন। এ নিয়ে কর্তৃপক্ষের নিকট বার বার তাগিদ দেওয়া সত্ত্বেও কোন কার্যকরী ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে না। ফলে দিন দিন এ দুর্নীতির প্রবনতা বাড়ছে। এছাড়াও একই ব্যক্তির নামে একাধিক লোন দেওয়া আছে।

এ ব্যাপারে সিনিয়র অফিসার মোঃ ফারুক হোসেন বলেন যে, ঋন আদায় হচ্ছে না বলে আমরা রিকবারি করছি। অত্র শাখার ব্যবস্থাপক জনাব মোঃ মাঈনুল ইসলাম বলেন আমি নতুন এসেছি, বিষয়টি খতিয়ে দেখে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহন করব।

দশমিনায় বাধাজাল আগুন দিয়ে ভষ্মিভূত

দশমিনা সংবাদদাতাঃ পটুয়াখালীর দশমিনায় বুড়াগৌরঙ্গ নদীতে উপজেলা মৎস্য অফিসার বিনয় কুমার এর নেতৃত্বে একটি দল অভিযান চালিয়ে গতকাল সোমবার বেলা সাড়ে ১১টায় দেড় লাখ টাকা মূল্যের অবৈধ ৩টি বাধাজাল আটক করে। আটক বাধাজাল কালারানী বাজার সংলগ্ন এলাকায় আগুনে ভষ্মিভূত করে।