মির্জাগঞ্জে মাদ্রাসা সুপারের বিরুদ্ধে মাতৃত্বকালীন ছুটি মঞ্জুরে উৎকোচের অভিযোগ

0

 

মোঃ বাদল হোসেন, মির্জাগঞ্জ প্রতিনিধি ঃ পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জ উপজেলার হোসাইনিয়া মাদ্রাসার সুপারের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। গতকাল বৃহষ্পতিবার সকাল ১০টায় হোসাইনিয়া মাদ্রাসার সহকারী শিক্ষিকা মোসাঃ ফাহিমা আক্তার (২৮) মাতৃত্বকালীন ছুটির জন্য গত ০১/০২/২০১৭ইং তারিখ মাদ্রাসার ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও সুপারের নিকট ছুটির আবেদন করলে সভাপতি ছুটি মঞ্জুরের জন্য সুপারিশ করলেও সুপার মাওলানা হাবিবুর রহমান ফাহিমা  আক্তারের কাছে ছুটি মঞ্জুর করার জন্য ৪ হাজার টাকা উৎকোচ দাবী করে। উপায়ন্ত না পেয়ে ফাহিমা উক্ত সুপারকে নগদ ১ হাজার টাকা দেওয়ার পর ৩ হাজার টাকা দিতে দেরী হওয়ায় তাকে ছুটি না দিয়ে মার্চ মাসের বেতন স্থগিত করে। পরে ফাহিমা আক্তার ও তার বাবা উপজেলা নির্বাহী অফিসার শাহ্ মোঃ রফিকুল ইসলামের কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করলে বিষয়টি তদন্ত করার জন্য উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেনকে জরুরী ভিত্তিতে ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য বলেন। পরে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার সুপার মাওলানা মোঃ হাবিবুর রহমানকে ফোন করে ডেকে এনে জিজ্ঞাসা করলে তিনি ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেন এবং মোসাঃ ফাহিমা আক্তারের মাতৃত্বকালীন ছুটি মঞ্জুরসহ মার্চ মাসের বেতন এপ্রিল মাসে দেওয়ার জন্য লিখিতভাবে অঙ্গীকার করেন। এছাড়াও সুপার মাওলানা মোঃ হাবিবুর রহমানের বিরুদ্ধে বিভিন্ন সময় শিক্ষকদের হয়রানী করার অভিযোগ রয়েছে। এব্যাপারে মাদ্রাসার সুপার মাওলানা মোঃ হাবিবুর রহমান বলেন বিষয়টি ভুলের কারনে হয়েছে মাতৃত্বকালীন ছুটির বিষয়টি আমার জানা ছিলনা। আমি মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসারের নিকট ক্ষমা চেয়েছি। এ ব্যাপারে মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোঃ জ াহাঙ্গীর হোসেন বলেন অভিযোগ পাওয়ার সাথে সাথে তাৎক্ষনিক ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে এবং মাতৃত্বকালীনছুটি মঞ্জুর করা হয়েছে ও মার্চ মাসের বেতন এপ্রিল মাসে দেওয়া হবে।