মির্জাগঞ্জে স্কুল ছাত্রী ধর্ষন চেস্টার অভিযোগ ॥ আল-আমিন বাহিনীর সদস্যদের বিরুদ্ধে।

1

 

মোঃ বাদল হোসেন,মির্জাগঞ্জ প্রতিনিধিঃ পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জে স্কুল ছাত্রী ধর্ষন চেস্টা অভিযোগ শালিশীর নামে ধামা-চাপা দিতে মরিয়া প্রভাবশালিরা। একের পর এক অপকর্ম করে পার পেয়ে যাচ্ছে আল-আমিন বাহিনীর সদস্যরা। অভিযোগ এলাকাবাসীর।

জানাগেছে,পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জে আল-আমিন বাহিনীর সদস্যরা স্থানীয় কতিপয় প্রভাবশালিদের ছত্রছায়ায় দিনের পর দিন চালিয়ে যাচ্ছেন সন্ত্রাসী,চাঁদাবাজিসহ বিভিন্ন অনৈতিক কাজ। স্কুলের কোমলমতি ছাত্রীরাও রেহাই পায়নি তাদের হাত থেকে। আর প্রভাবশালিরা রীতিমত এসব অনৈতিক কাজের সমর্থন দিয়ে শালিশীর নামে কিছু অর্থ জরিমানা করে পার পাইয়ে দিচ্ছেন তাদের। গত ২৩ জুলাই স্থানীয় ডিস ব্যবসায়ী তারেকের কর্মচারী শহিদুল ইসলামের কাজে চাঁদা দাবী করায় তিনি মির্জাগঞ্জ থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন। পরবর্তিতে প্রভাবশালিরা বিষয়টি শালিশীর নামে ধামাচাপা দেয়। ২৫ জুলাই মির্জাগঞ্জ দরগাহ শরীফ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণীর ছাত্রী স্কুল শেষে বাড়ী ফেরার পথে কপালভেরা ব্রীজ সংলগ্ন পল্লান বাড়ী নামক স্থানে পৌছা মাত্র ওই বাহিনীর সদস্য হাসান,ইলিয়াসসহ কয়েকজন পথ রোধ করে ধর্ষন চেস্টায় টানা-হেচড়া করে। ছাত্রীর ডাক চিৎকারে এলাকার লোকজন ছুটে আসলে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। এ ঘটনার প্রতিকারে ছাত্রীর অভিবাবক অভিযোগ আনলে প্রভাবশালিরা শালিশীর নামে ধামা-চাপা দিতে চেস্টা চালাচ্ছে। এ বিষয়ে জানতে চাইলে ওই ছাত্রীর অভিবাবক সাংবাদিকদের বলেন,বিষয়টি নিয়ে শালিশীর কথা চলছে। তবে কোন ফয়শালা না হলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে। আল-আমিন বাহিনীর সদস্যদের বিরুদ্ধে মির্জাগঞ্জ আদালতে একাধিক মামলা ও থানায় সাধারন ডায়েরীসহ অনেক অভিযোগ রয়েছে।