যথাযোগ্য মর্যাদায় বঙ্গবন্ধু’র ৯৭তম জন্মদিন ও জাতীয় শিশু দিবস পালিত

0

 

ডেক্স রির্পোটঃ ত্যাগ এবং সাধনা ছাড়া এ দেশকে গড়া যাবে না। সবুর করতে হবে। সহ্য করতে হবে। কাজ করতে হবে — এই উক্তি গুলো নিয়ে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান এর ৯৭তম জন্মদিন ও জাতীয় শিশু দিবস  যথাযোগ্য মর্যাদায় নানা কর্মসূচি পালন করেছে পটুয়াখালী জেলা প্রশাসন ।

গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল সোয়া ৭টায় জেলা প্রশাসনের আয়োজনে শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের স্মৃতিসৌধ সংলগ্ন বঙ্গবন্ধু মূর‌্যাল প্রাঙ্গনে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান এর প্রকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন জেলা প্রশাসক একেএম শামিমুল হক ছিদ্দিকী, জেলা পরিষদ প্রশাসক মুক্তিাযোদ্ধা খান মোশারফ হোসেন, পুলিশ সুপার সৈয়দ মোসফিকুর রহমান, পৌর মেয়র ডাঃ মোঃ শফিকুল ইসলাম, সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এ্যাড. মোঃ তারিকুজ্জামান মনি, জেলা আওয়ামী লীগ , মহিলা লীগ, জাসদ, গণফোরাম, কমিউনিস্ট পার্টি,  পটুয়াখালী প্রেসক্লাব, জেলা আইনজীবী সমিতি, ইনস্টিটিউট অব গ্রাফিক মিডিয়া এন্ড টেকনোলজি পটুয়াখালী সহ বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, স্কুল, কলেজ প্রতিষ্ঠানের প্রধানগণ শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের স্মৃতিসৌধ সংলগ্ন বঙ্গবন্ধু মূর‌্যালে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে বঙ্গবন্ধুকে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে জেলা প্রশাসনের আয়োজনে সাড়ে ৭টায় বঙ্গবন্ধু মূর‌্যাল স্থল থেকে দিবসটি উপলক্ষে  একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের করা হয়। র‌্যালিটি শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে জেলা শিল্পকলা একাডেমী প্রাঙ্গণে এসে শেষ হয়।সকাল ১০ টায় প্রবীণ হিতৈষী সংঘ কার্যালয়ে শিশু স্বাস্থ্যসেবা ক্যাম্পে পাঁচ শতাধিক শিশুকে ও দেড় শতাধিক বার্ধক্য রোগীদের ফ্রি চিকিৎসা সেবা প্রদান করা হয়। এ ছাড়া সকাল ১১ টায়  ইসলামিক ফাউন্ডেশনে বঙ্গবন্ধুর জীবন ও কর্মের উপর আলোচনা, দোয়া, মিলাদ-মাহফিল, রচনা ও কুইজ প্রতিযোগিতার পুরস্কার এবং সনদ বিতরন অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।  এছাড়া  বাদ যোহর মসজিদ সমূহে দোয়া এবং সুবিধাজনক সময়ে মন্দির, গীর্জা ও প্যাগোডায় বিশেষ প্রার্থনা।দুপুরে জেলখানা,হাসপাতাল, শিশু পরিবার এবং বৃদ্ধাশ্রমে উন্নত মানের খাবার পরিবেশন করা হয়। বঙ্গবন্ধুর জীবন ও কর্মের উপর সন্ধ্যা সাড়ে ৬ টায় জেলা শিল্পকলা একাডেমী মিলনায়তনে এক  আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনা সভা শেষে  শিল্পকলা একাডেমী‘র শিল্পীদের পরিবেশনায় পরিবেশিত হয় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। এছাড়া ১৯ মার্চ পর্যন্ত হেতালিয়া বাঁধঘাট, কালিকাপুর চৌরাস্তা, খাসের হাট বাজার, হাজীখালী হাইস্কুল মাঠ, আলাউদ্দিন শিশু পার্ক, কলের পুকুরপাড় ফজলুল হক প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে বঙ্গবন্ধু জীবনী ও মুক্তিযুদ্ধ ভিত্তিক ডকুমেন্টারি প্রদর্শন করা হবে।

দুমকি প্রতিনিধি: পটুয়াখালীর দুমকিতে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৭তম জন্ম বার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস পালিত হয়েছে।

গতকাল বৃহস্পতিবার উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে বর্ণাঢ্য র‌্যালী, আলোচনা সভা, শিশু-কিশোরদের রচনা ও চিত্রাংকণ প্রতিযোগিতার মধ্যে দিয়ে দিবসটি পালিত হয়। ইউএনও মো. হাফিজুর রহমানের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতা করেন উপজেলা আ’লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো. শাহজাহান সিকদার। ভাইস-চেয়ারম্যান এড. হুমায়ুন কবির বাদশা, মিসেস নাসিমা বেগম, মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মশিউর রহমান, পল্লী উন্নয়ন কর্মকর্তা মাহবুবুল কবির, উপজেলা শিক্ষা অফিসার ফিরোজ আহমেদ, নির্বাচন কর্মকর্তা মো. শহিদুল ইসলাম, উপজেলা আ’লীগের সহ-সভাপতি মজিবুর রহমান, এলএইচসিবির প্রশাসনিক কর্মকর্তা ডেভিড ঘোষ বিশেষ অতিথি ছিলেন। অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন বাবু মধুসূধন হাওলাদার, জসিম উদ্দিন বাদল, সালমা বেগম প্রমুখ। এর আগে সকাল সাড়ে ৭টায় উপজেলা কমপ্লেক্স চত্তর থেকে একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালী বের হয়ে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে একই স্থানে শেষ হয়। পরে অডিটরিয়ামে বিভিন্ন স্কুল-মাদ্রাসার শিশু-কিশোর শিক্ষার্থীদের ‘শিশু বঙ্গবন্ধু ও স্বাধীনতা শীর্ষক রচনা ও চিত্রাংকণ প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করা হয়।

 

পবিপ্রবিতে ঃ  বঙ্গবন্ধু‘র প্রকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ, র‌্যালি, আলোচনা সভা, শিশু-কিশোর প্রতিযোগিতা, দেয়ালিকা উন্মোচন, প্রামাণ্য চিত্র প্রদর্শনী এবং দোয়া ও প্রার্থনা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৭তম জন্মদিন ও জাতীয় শিশু দিবস পালিত হয়েছে। সকাল ৯টায় একাডেমিক ভবনের সম্মুখে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোঃ শামসুদ্দীন। এরপর ডীন, কাউন্সিল, প্রভোষ্ট কাউন্সিল, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হল, শিক্ষক সমিতি, অফিসার্স এসোসিয়েশন, বঙ্গবন্ধু পরিষদ, বঙ্গবন্ধু শিক্ষা ও গবেষনা পরিষদ, নীল দল, বঙ্গবন্ধু কর্মকর্তা-কর্মচারী সমন্বয় পরিষদ, ছাত্রলীগ, সৃজনী বিদ্যানিকেতনসহ বিভিন্ন সংগঠন পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন।

সকাল ৯.৩০ টায় একাডেমিক ভবনের সম্মুখ থেকে এক বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের হয়ে ক্যাম্পাসের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন করে। পরে একাডেমিক মিলনায়তনে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন প্রফেসর ড. মোঃ শামসুদ্দীন। ভাইস-চ্যান্সেলর, শোষণ ও বঞ্চনা থেকে শিশুদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার মাধ্যমে দেশে একটি শিশু বান্ধব বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নে সোনার বাংলা গড়ে তোলার লক্ষ্যে বর্তমান সরকার কর্তৃক ঘোষিত ভিশনঃ নতুন প্রেক্ষিত পরিকল্পনা রুপকল্প-২০৪১” বাস্তবায়নে বলিষ্ঠ ও অগ্রণী ভূমিকা পালন করার জন্য সকলের প্রতি আহবান জানান।