রাঙ্গাবালীতে কিশোরের উপর নির্যাতন

0

রাঙ্গাবালী প্রতিনিধিঃ পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী উপজেলার বড়বাইশদিয়া ইউনিয়নের গাববুনিয়া গ্রামের ১নং ওয়ার্ডের হাওলাদার বাড়ীর এনসান হাওলাদারের ছেলে ইয়ামিন হাওলাদার (১২) উপর অমানবিক নির্যাতন করলো এলাকার প্রভাবশালীরা। ইয়ামিন এর বাবা এনসান হাওলাদার  জানান, বাচ্চাদের মধ্যে কথাকাটাটির এক পর্যায়ে বাচ্চাদের চাচারা একত্রিত হয়ে তার ছেলেকে হাত পা বেধে এলোপাথারী ভাবে মারে ইয়ামিন এর ডাক চিৎকারে এলাকাবাসি এসে পরলে মারধার কারীরা পালিয়ে যায়। পরে এলাকাবাসি ইয়ামিনকে গলাচিপ হাসপাতালে শনিবার রাতে ভর্তি করে। এব্যাপারে ইয়ামিন এর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি পশ্চিম গাববুনিয়া দাখিল মাদরাসার অষ্টম শ্রেণির ছাত্র আমার রোল নং- ৬০, আমি মসজিদে নামাজ পড়তে গেলে আমার সাথে পূর্বের শত্রুতার  জের ধরে আমাকে মসজিদ থেকে নামিয়ে একই এলাকার মৃতঃ ফজলু হাং এর ছেলে  বাহাউদ্দিন, মৃতঃ হরমুজ হাং এর ছেলে নুরু  হোসেন হাং, নুর  মোহাম্মদ এর ছেলে কাইয়ূম মুন্সি, আঃ রব মুন্সির ছেলে গণি মুন্সি এরা একত্রিত হয়ে আমাকে মেরেছে। এব্যাপারে গলাচিপা হাসপাতালে কর্মরত ডাক্তার হাসান জামান বলেন, রোগির মাথায় এবং বুকে চোট লেগেছে, তৃতীয় তলায় ১৮নং বেডে ভর্তি আছে।  এ বিষয়ে বাহাউদ্দিনের কাছে জানতে চাইলে তার ফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়। এ বিষয়ে ১নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য জাকির মৃধার কাছে জানতে চাইলে তিনি মরামারি সত্যতা স্বীকার করেন। ইউপি চেয়ারম্যান আবু আব্দুল্লাহর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, বিষয়টি আমি শুনেছি দেখব। রাঙ্গাবালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সামসুল আরেফিন বলেন, অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।