রাঙ্গাবালীতে মাদ্রাসা ছাত্রী ধর্ষণের ঘটনায়  ৪ জনের বিরুদ্ধে মামলা

11

স্টাফ রিপোর্টারঃ পটুয়াখালীর রাঙ্গবালী উপজেলায় বিয়ের প্রলোভন দিয়ে মাদ্রাসা ছাত্রী ধর্ষণের ঘটনায় প্রেমিকসহ ৪ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে।  রবিবার রাতে ভিকটিমের বাবা বাদী হয়ে রাঙ্গাবালী থানায় এ মামলা দায়ের করেন। ধর্ষণের শিকার ওই তরুণী সাজির হাওলা আকবাড়িয়া দাখিল মাদ্রাসার নবম শ্রেণীর শিক্ষার্থী। মামলায় প্রেমিক রনি হাওলাদার(২৫) ও তার পিতা আলমগীর হাওলাদার(৪৫) এবং মাহাবুব হাওলাদার(৩৫) ও শফিক হাওলাদারকে(৫০) আসামী করা হয়। তাদের বাড়ি উপজেলার ছোটবাইশদিয়া ইউনিয়নের হরিদ্রাখালী গ্রামে।

মামলার বিবরণ ও ভিকটিম পরিবার সূত্রে জানাগেছে, গত ১৭ আগষ্ট বিয়ের প্রলোভন দিয়ে ভিকটিমকে কুয়াকাটা পর্যটন এলাকায় নিয়ে যায় রবিন হাওলাদার। সেখানে গিয়ে সাগর আবাসিক হোটেলে একদিন একরাত অবস্থান করেন। এসময় তাকে হোটেল কক্ষে আটকে রাতভর ধর্ষণ করে রবিন। সকাল হলে ভিকটিমকে কুয়াকাটা ফেলে রেখে পালিয়ে যায় সে। পরে স্থানীয়দের সহযোগীতায় বাড়ি ফিরে যায় ওই তরুণী। এর আগে ভিকটিমের বাড়িতে বসেও একধিকবার ধর্ষণ করা হয়। কিন্তু বিয়ের আশ^াস দেয়ার কারণে রবিনের বিরুদ্ধে মুখ খুলেনি সে। কুয়াকাটায় হোটেলে ধর্ষণের ঘটনা এলাকায় জানাজানি হলে স্থানীয় প্রভাবশালীদের সহযোগীতায় ভিকটিমকে অপহরণ করে লুকিয়ে রাখেন রবিনের লোকজন। যার কারণে এত দিনেও মামলা করতে পারেনি ধর্ষিতার পরিবার। পরে স্থানীয়দের সহযোগীতায় ভিকটিম উদ্ধার হলে থানায় গিয়ে মামলা দায়ের করা হয়।

রাঙ্গাবালী থানার ওসি আলী আহম্মেদ জানান, ধর্ষণের অভিযোগ থানায় মামলা রেকর্ড হয়েছে। আসামীদের গ্রেফতারের তৎপরতা চলছে। অন্যদিকে ভিকটিমের মেডিকেল পরীক্ষার জন্য পটুয়াখালী সদর হাসপাতালে পঠানো হয়েছে।