শেখ হাসিনা বেঁচে থাকলে সকল যুদ্ধাপরাধিদের বিচার বাংলার মাটিতে হবে চীফ হুইপ আ স ম ফিরোজ

0

 

02

 

অতুল পাল, বিশেষ প্রতিনিধি : জাতীয় সংসদের চীফ হুইপ আ স ম ফিরোজ বলেছেন, শেখ হাসিনা বেঁচে থাকলে সকল যুদ্ধাপরাধিদের বিচার এই বাংলার মাটিতেই হবে। ইতিমধ্যেই কুখ্যাত রাজাকার কাদের মোল্লা, সাকা চৌধুরী এবং মুজাহিদসহ চারজনের ফাঁসি কার্যকর করা হয়েছে। এদেশের স্বাধীনতা বিরোধিদের তদবিরে বিশ্বের প্রভাবশালী অনেক দেশ এ বিচার প্রক্রিয়াকে নস্যাত করতে বহু চেষ্টা করেছন। কিন্তু বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী তাদের তদবির ও চাপকে পরোয়া না করে স্বাধীনতার শক্রদের বিচার কাজ এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন। শত বাঁধা বিঘেœর মধ্যেও বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে দেখে শক্তিধর কয়েকটি দেশ বাংলাদেশে আইএসআই আছে বলে অপপ্রচার চালিয়ে দেশকে অস্থিতিশীল করার চক্রান্ত শুরু করেছে। তিনি দলমত নির্বিশেষে মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের সকল শক্তিকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে তাদের সে ষরযন্ত্রকে নশ্যাত করে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বপ্নের ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়তে সহায়তা করার জন্য সকলের প্রতি আহবান জানান। গত বুধবার মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে বাউফল উপজেলা প্রশাসন কর্তৃক আয়োজিত বিজয় দিবস ও মুক্তিযোদ্ধা সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে চীফ হুইপ সকাল সারে ৭ টায় উপজেলা পরিষদ চত্তরে স্থাপিত স্বাধীনতা স্তম্ভে শহীদদের স্বরণে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। বেলা ৯ টায় পাবলিক মাঠে বিজয় দিবস উপলক্ষে আয়োজিত বিভিন্ন অনুষ্ঠানের শুভ উদ্বোধন করেন। এসময় তিনি মুক্তিযোদ্ধাদের সালাম ও তাঁদেরকে অভিন্দন জানিয়ে বাংলাদেশ পুলিশ ও বাংলাদেশ  আনসার বাহিনী এবং বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিশু কিশোরদের কুচকাওয়াজ পরিদর্শন ও সালাম গ্রহণ করেন। অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহম্মদ আবদুল্লা আল মাহামুদ জামান, পটুয়াখালী জেলা সিনিয়র এএসপি সাহেব আলী পাঠান, বাউফল থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আ জ ম মাসুদুজ্জামান, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মোশারেফ হোসেন খান, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মোসা: রেহেনা বেগম, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক আবদুল মোতালেব হাওলাদার, সাংগঠনিক সম্পাদক ইব্রাহিম ফারুক প্রমূখ। এরপর বাউফল পৌর শহরে চীফ হুইপ আ স ম ফিরোজের নেতৃৃত্বে বিজয় র‌্যালি বের করা হয়।