৮৬ লক্ষ টাকাআত্মসাত অভিযোগে বিআরডিবি’র ক্যাশিয়ার  জেলহাজতে

6

 

স্টাফ রিপোর্টারঃ বাংলাদেশ পল্লী উন্নয়ন বোর্ড (বিআরডিবি) ও  পল্লী দারিদ্র বিমোচন কর্মসূচী (পদাবিক) পটুয়াখালী সদর উপজেলার সাবেক হিসাব রক্ষক (বর্তমানে কলাপাড়া উপজেলা পল্লী উন্নয়ন বোর্ড’র হিসাব রক্ষক হিসাবে কর্মরত) আবুল কালাম আজাদ (৪৫) সরকারী অনুদানের বিআরডিবির  ১৬৩টি চেকের মাধ্যমে জালিয়াতি করে ৮৫ লক্ষ ৬০ হাজার টাকা আত্মসাতের মামলায় এখন  জেল হাজতে।

বিআরডিবি সদর উপজেলা অফিস ও সদর থানায় সদর উপজেলা পল্লী উন্নয়ন অফিসার কর্তৃক দায়েরকৃত এজাহার সূত্রে জানা গেছে, আবুল কালাম আজাদ ৩০.১০.২০০৬ইং তারিখ বিআরডিবি সদর উপজেলা অফিসে হিসাব রক্ষক হিসাবে যোগদান করেন। তিনি কলাপাড়া বদলি হলে ২১.০৯.২০১৬ইং তারিখ কলাপাড়া যোগদানের উদ্দেশ্যে ছাড়পত্র নেন। তার বদলি হওয়ার পর দায়িত্বপ্রাপ্ত হিসাব রক্ষক মো. সেলিম হোসেন তালুকদার তার দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে ব্যাংক হিসাব বিবরনীতে টাকার অংকে ফ্লুইড দেখে তার সšেদহ হয় এবং ০৬.১১.২০১৬ইং তারিখ সংশ্লিস্ট ব্যাংক থেকে হিসাব বিবরনী সংগ্রহ করে আবুল কালাম আজাদের জালিয়াতি এবং সরকারী টাকা অঅত্মসাতের ঘটনা ধরা পরে। অফিসে আবুল কালাম আজাদ কর্তৃক রক্ষিত চেকের মুড়ি, চেক ইস্যু রেজিস্টার, নোটসিট এবং বিল ভাউচার পরীক্ষা নিরীক্ষা করে দেখা যায় আবুল কালাম আজাদ চেক জাীরয়াতি করে, ০৬.০৪.২০০৯ইং তারিখ হতে ১৫.১১.২০০৯ তালিখ পর্যন্ত ৪টি চেকের মাধ্যমে ১ লক্ষ ৬০ হাজার টাকা, ০৪.০১.২০১০ ইং হতে ০১.১২.২০১০ ইং পর্যন্ত ১১টি চেকের মাধ্যমে ২ লক্ষ ৮০ হাজার টাকা, ১৪.০৩.২০১১ইং হতে ২৮.১২.২০১১ইং পর্যন্ত ১৬টি চেকের মাধ্যমে ৫লক্ষ ৩০ হাজার টাকা, ০৯..০১.২০১২ইং পর্যন্ত ২৭টি চেকের মাধ্যমে ১৭ লক্ষ ৪০ হাজার টাকা, ০১.০১.২০১৩ইং হতে ০৮.১২.২০১৩ইং পর্যন্ত ৩১টি চেকের মাধ্যমে ২২ লক্ষ ৩০ হাজার টাকা, ০১.০১.২০১৪ইং হতে ৩০.১২.২০১৪ইং পর্যন্ত ৩৩টি চেকের মাধ্যমে ১৬ লক্ষ ৪০ হাজার টাকা, ২০.০১.২০১৫ইং হতে ০১.১২.২০১৫ইং পর্যন্ত ২৩টি চেকেরে মাধ্যমে ১১লক্ষ ৬০ হাজার টাকা, ০৩.০১.২০১৬ইং হতে ০১.০৯.২০১৬ইং তারিখ পর্যন্ত ১৮টি চেকের মাধ্যমে ৮লক্ষ ২০হাজার টাকা সহ মোট ১৬৩টি চেকের মাধ্যমে জালিয়াতি করে ৮৫লক্ষ ৬০ হাজার টাকা  আত্মসাত করেছে। এ ঘটনা পটুয়াখালী সদর উপজেলা পল্লী উন্নয়ন অফিসার এস.এম. আরিফুর রহমান সংশ্লিস্ট উর্ধ্বতন কর্মকর্তাকে অবহিত করলে, কর্মকর্তার নির্দেশে ০৭ নভেম্বর বিকালে আবুল কালাম আজাদকে অফিসে ডেকে এনে পুলিশে খবর দিলে পুলিশ আবুল কালাম আজাদকে আটক করে। মঙ্গলবার পটুয়াখালী সদর উপজেলা পল্লী উন্নয়ন অফিসার এস.এম. আরিফুর রহমান নিজে বাদী হয়ে উক্ত পরিমান টাকা আত্মসাতের অভিযোগ এনে আবুল কালাম আজাদের বিরুদ্ধে সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা নং-১৩। পুলিশ আটক আবুল কালাম  আজাদকে  মঙ্গলবার  কোর্টে প্রেরন করলে বিজ্ঞ আদালত তাকে জেল হাজতে প্রেরন করেন।