3

 

কে এম সোহেল, আমতলী প্রতিনিধিঃ  বাংলা নববর্ষ উপলক্ষে আমতলীতে মেহেদী হাসান সম্পাদিত শিশু-কিশোর বিষয়ক ‘সুর্যের আলো’ সাময়িকীতে ছায়াছবি ছুটির ঘন্টা কাহিনী অবলম্বনে ‘হঠাৎ একদিন’ শীর্ষক প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে। ওই প্রতিবেদনে আমতলী একে সরকারী পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণির ছাত্রী তানিশা বিদ্যালয়ের ওয়াশ রুমে ৪দিন আটক থাকার পরে মর্মান্তিক মৃত্যু হয়। এ ঘটনা ওই ম্যাগাজিনে প্রকাশিত হওয়ার পরে আমতলীতে তোলপাড় শুরু হয়েছে।

বিদ্যালয়ের শিক্ষক, থানা ও বিভিন্ন গণমাধ্যমের কর্মীদের কাছে অভিভাবকসহ বিভিন্ন শ্রেনীর  পেশার মানুষ ঘটনার বিষয়টি জানতে চায়। সংবাদ কর্মীরা বিষয়টি নিয়ে খোঁজাখুঁজির পরে জানতে পারে, ঘটনাটি আদৌ সত্য নয়। একটি কাল্পনিক কাহিনী নির্ভর প্রতিবেদনটি প্রকাশিত হয়েছে।

এ বিষয় আমতলী একে সরকারী পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের  ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক বজলুর রহমান জানান, তানিশা নামে ৮ম শ্রেণিতে কোন ছাত্রী নেই। একটি মিথ্যা কাহিনী তৈরী করে বিদ্যালয়ের ভাবমুর্তী নষ্ট করার জন্য প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়েছে। তিনি আরো জানান, ব্যবস্থাপনা কমিটির সিদ্ধান্ত নিয়ে সম্পাদক, নির্বাহী সম্পাদক ও প্রতিবেদকের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করবো। এম্যাগাজিনের সম্পাদক মেহেদী হাসান মুঠোফোনে  বলেন, এ ঘটনার জন্য আমি আন্তরিকভাবে দুঃখিত।

আমতলী থানা ভারপ্রাপ্ত পুলিশ কর্মকর্তা মোঃ শহিদুল্লাহ জানান, বিষয়টি জেনেছি। কর্তৃপক্ষ মামলা দায়ের করলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।