0

1এম. রহমান, দুমকি : পটুয়াখালীর দুমকি জেএসসি পরীক্ষা কেন্দ্রে এক পরীক্ষার্থীর উত্তরপত্রে লিখে দেয়ার অপরাধে রেজাউল করিম নামের এক শিক্ষককে ২বছরের সাজা ও নগদ ৫হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। প্রথম শ্রেণীর নির্বাহি মেজিষ্ট্রেটের ক্ষমতা বলে দুমকি উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা মো: হাফিজুর রহমান পরিচালিত ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারে রেজাউল করিম নামের ওই শিক্ষককে ২বছরের স্বশ্রম কারাদন্ড এবং নগদ ৫হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ১৫দিনের সাজা প্রদান করেছেন। গতকাল রবিবার দুমকি জেএসসি গণিত পরীক্ষার শেষ সময়ে কেন্দ্রের ১নং ভেন্যুর ৮নং কক্ষের প্রতিবন্ধি পরীক্ষার্থীর উত্তরপত্র লেখার সময় রেজাউল করিমকে হাতে নাতে আটক করেন নির্বাহি মেজিষ্ট্রেট মো: হাফিজুর রহমান। পরীক্ষা শেষে কেন্দ্রের অফিস কক্ষে ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারে ধৃত রেজাউল করিমকে ২বছর স্বশ্রম কারাদন্ড ৫হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ১৫দিনের জেলের দন্ডাদেশ প্রদান করেন। সাজাপ্রাপ্ত রেজাউল করিম কলাগাছিয়া কলেজের প্রভাষক বলে জানা গেছে। তার গ্রামের বাড়ি উপজেলার জলিশা গ্রামে। কেন্দ্র সচিব মো: আলমগীর হোসেন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, রেজাউল করিম একজন বহিরাগত শিক্ষক। কেন্দ্র এলাকার ১৪৪ধারা ভঙ্গ করে অবৈধ ভাবে পরীক্ষার হলে প্রবেশ করে নিকটাত্মীয়ের উত্তরপত্র লেখায় সহায়তার চেষ্টা কালে তাকে আটক করা হয়েছে। সাজাপ্রাপ্ত শিক্ষককে থানা পুলিশ প্রহরায় জেলা কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে।